সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান আর নেই                 লকডাউনের নির্দেশনা পায়নি প্রশাসন : রেড জোন সিলেট                 বীর মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যুতে জেলা ইউনিট কমান্ড ও স্বেচ্ছাসেবক কমিটির শোক                 আজ থেকে খুলছে ১৮ মন্ত্রণালয়ের অফিস : কাজ চলবে সীমিত                 মহানগর যুবলীগের সম্পাদক মুশফিক জায়গীরদারের ইফতার বিতরণ                 ইনজেকশন পুশ করার ৩ ঘন্টার মধ্যে সুস্থ করোনা আক্রান্ত !                 খাদ্য সামগ্রী নিয়ে অসহায়দের পাশে বিএনপি নেতা ছাত্তার                
২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ ৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ ইং শনিবার বিকাল ৫:৪৮ হেমন্তকাল

 

 

 

নাগরিকত্ব দিলে বাংলাদেশের অর্ধেক মানুষ ভারতে চলে আসবে : বিজেপি মন্ত্রী

প্রকাশিত হয়েছে : ২:৪৮:৪৩,অপরাহ্ন ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২০ |
এ সংবাদটি পড়া হয়েছে 132 বার
নাগরিকত্ব দিলে বাংলাদেশের অর্ধেক মানুষ ভারতে চলে আসবে : বিজেপি মন্ত্রী

বাংলাদেশ নিয়ে ঔদ্ধত্যপূর্ণ মন্তব্য করে ভারতের বিজেপি সরকারের স্বরাষ্ট্রবিষয়ক কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী জি কে রেড্ডি বলেছেন, ‘ভারতের নাগরিকত্ব দিলে বাংলাদেশের অর্ধেক মানুষ এ দেশে চলে আসবে। এমন সুবিধা পেলে কেউই আর বাংলাদেশে থাকতে চাইবে না।’

প্রতিমন্ত্রী জি কে রেড্ডি এমন এক সময় মন্তব্য করলেন যখন নাগরিকত্ব বিল নিয়ে ভারত ও বাংলাদেশে তীব্র প্রতিবাদ উঠেছে। ভারতের অনেক প্রদেশে অবরোধ ও বিক্ষোভ করছে সে দেশের সাধারণ নাগরিকরা। খবর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের।

এছাড়া দুই দেশের মধ্যে বন্ধুপ্রতিম সম্পর্ক থাকার পরও বিজেপি সরকারের শীর্ষ নেতারা বাংলাদেশ নিয়ে কটাক্ষপূর্ণ মন্তব্য করেই চলেছেন।

গত রোববার রেড্ডি সে দেশের নতুন নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন সিএএর বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া বিরোধী রাজনীতিবিদদের প্রতি এমন কথা বলেছেন। অবশ্য তার বক্তব্যের মূল লক্ষ্যবস্তু ছিলেন তেলেঙ্গানা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও (কেসিআর)।

রোববার হায়দরাবাদে সন্ত রবিদাস জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে আয়োজিত এক জন সমাবেশে তিনি বলেন, নাগরিকত্ব নেওয়ার সুযোগ পেলে অর্ধেক বাংলাদেশ খালি হয়ে যাবে। তখন তাদের দায়িত্ব কে নেবে? কেসিআর? নাকি রাহুল গান্ধী? তারা অবৈধ অনুপ্রবেশকারীদের জন্য নাগরিকত্ব চাইছেন।

একইসঙ্গে সিএএ ভারতের কোনো নাগরিক বিরোধী আইন নয় এমন দাবি করে স্বরাষ্ট্রবিষয়ক কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বলেন, ১৩০ কোটি ভারতীয় নাগরিকের মাঝে একজনের অধিকার কেড়ে নেওয়ার কথাও যদি এতে থাকে তবে কেন্দ্রীয় সরকার সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি পর্যালোচনা করে দেখতে প্রস্তুত। কিন্তু কোনো পাকিস্তানি বা বাংলাদেশি মুসলিমের জন্য এটা বাতিল করা হবে না।

রেড্ডি সিএএকে বাংলাদেশ, পাকিস্তান এবং আফগানিস্তানের অমুসলিম জনসংখ্যার নিরাপত্তার স্বার্থে নেয়া এক মানবিক উদ্যোগ বলেই অবহিত করেন।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



AD

 

 

 

 

 

 

 

devolop ওয়েব হোম বিডি Mobile: 01711-370851