পুরনোতেই ভরসা রাখলো কানাইঘাট আওয়ামী লীগ                 সোহেল রানা কানাইঘাট উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী                 কানাইঘাটের ৯নং রাজাগঞ্জ ইউপি আ’লীগের ৬৯ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির অনুমোদন                 অপটিক্যাল বাজারের উদ্বোধনে মেয়র আরিফ ও আসাদ                 আবরার হত্যাকারীদের শাস্তি ও বেগম জিয়ার মুক্তিতে সিলেটে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল                 আল আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংক লিঃ এর সিলেট জোনে “প্রিভেনশন অব মানি লন্ডারিং এণ্ড কমবেটিং ফাইন্যান্সিং অব টেরোরিজম” শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত                 আল আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংক সিলেট জোনের “প্রিভেনশন অব মানি লন্ডারিং এণ্ড কমবেটিং ফাইনেন্সিং অব টেরোরিজম” শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত                
২৭শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ ১২ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং মঙ্গলবার বিকাল ৫:৫৫ হেমন্তকাল

 

 

সর্বশেষ:

 

মিডিয়া কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন চ্যানেল এস ভিডিওসহ

প্রকাশিত হয়েছে : ৩:২৩:৩৮,অপরাহ্ন ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬ |
এ সংবাদটি পড়া হয়েছে 537 বার
মিডিয়া কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন চ্যানেল এস ভিডিওসহ

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন
অবশেষে পর্দা নেমেছে সাংবাদিকদের নিয়ে আয়োজিত মাহা ইমজা মিডিয়া কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের। রোববার সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে জমজমাট ফাইনাল খেলা ও পুরস্কার বিতরণির মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হয় টুর্নামেন্টের প্রথম আসরের। ইলেকট্রনিক মিডিয়া জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন ইমজা সিলেটের আয়োজনে এই টুর্নামেন্টে অংশ নেয় আটটি দল। দলগুলো হচ্ছে : এসএ টিভি, যমুনা টিভি, দৈনিক উত্তরপূর্ব, দৈনিক শ্যামল সিলেট, দৈনিক সবুজ সিলেট, দৈনিক সংবাদ, চ্যানেল এস ও বাংলাদেশ প্রতিদিন।
ফাইনালে শক্তিশালী বাংলাদেশ প্রতিদিন দলকে ৩-১ গোলে পরাজিত করে প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে চ্যানেল এস ইউকে দল। 012
বিকেল সাড়ে চারটায় শুরু হওয়া ম্যাচে দু দল সমান তালে খেলতে থাকলেও প্রথমার্ধে বাংলাদেশ প্রতিদিনের অপু, মান্না আর কোহিনূরের একের পর এক আক্রমণের কারণে বেশ চাপে পড়ে যায় চ্যানেল এস। পাল্টা আক্রমণে একটি সুযোগ পায় চ্যানেল এসও। তবে ডি বক্সেও ভেতর গোলরক্ষক নাজমুল কবীর পাবেলকে একা পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ হন চ্যানেল এসের শামীম। ম্যাচের দশ মিনিটের মাথায় মান্না চৌধুরীর বাড়ানো বলে গোল করে বাংলাদেশ প্রতিদিনকে এগিয়ে নেন কোহিনূর। গোল পরিশোধ করতে দেরি করেনি তারুণনির্ভর দল চ্যানেল এসও। এতোদিন গোলবঞ্চিত থাকলেও সঠিক সময়েই গোল করে দলকে সমতায় নেন চ্যানেল এসের শফি আহমদ।
প্রথমার্ধ শেষ হয় ১-১ গোলের সমতায়।
012110
দ্বিতীয়ার্ধে আস্তে আস্তে প্রভাব বিস্তার করতে শুরু করে চ্যানেল এস। দলের অধিনায়ক মঈন উদ্দিন মনজুর মাঝ মাঠ থেকে নেয়া শট বাংলাদেশ প্রতিদিনের রক্ষণভাগের খেলোয়াড়েরর মাথায় লেগে জড়িয়ে যায় জালে। আত্মঘাতি গোলে পিছিয়ে পড়ার পর অনেকটা খেই হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ প্রতিদিন। এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে রক্ষণভাগ থেকে বল নিয়ে এগিয়ে গিয়ে আরো একটি দর্শনীয় গোল করে বিপক্ষ দলের জয়ের আশার কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন চ্যানেল এসের ডিফেন্ডার হুমায়ুন কবির লিটন। আর ঘুরে দাড়াতে পারেনি বাংলাদেশ প্রতিদিন। খেলা শেষ হয় ৩-১ গোলের ব্যবধানে।
খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পুরস্কার তুলে দেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহি এনামুল হাবিব, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ, ক্রীড়া সংগঠক বিজিত চৌধুরী এবং টুর্নামেণ্টের পৃষ্ঠপোষক মাহার সত্ত্বাধিকারী, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের কার্যনির্বাহি সদস্য মাহি উদ্দিন আহমদ সেলিম।
ইমজার সাধারণ সম্পাদক সজল ছত্রী সঞ্চালনায় পুরস্কার বিতরণীয় অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন ইমজার সভাপতি মাহবুবুর রহমান রিপন। স্বাগত বক্তব্য দেন টুর্নামেন্ট পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক মঈনুল হক বুলবুল। তিনি টুর্নামেন্ট আয়োজনে সবার সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জানান।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, সাংবাদিকদের এই খেলার আয়োজন অবশ্যই একটি বৃহৎ আনন্দানুষ্ঠান। তিনি বিজয়ী চ্যানেল এস দলকে অভিনন্দন জানান এবং অংশগ্রহণকারী সকল দলের খেলোয়াড়দের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, সাংবাদিকদের মধ্যে সম্প্রীতি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। টুর্নামেন্টের পৃষ্টপোষকতার জন্য তিনি মাহা এবং তার সত্ত্বাাধিকারী মাহি উদ্দিন আহমদ সেলিমকেও ধন্যবাদ জানান।
সম্মাননা ও পুরস্কার প্রদানের শুরুতেই প্রধান অতিথির হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন ইমজার প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি আল আজাদ। এরপর প্রধান অতিথি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের হাত থেকে সম্মাননা ক্রেস্ট গ্রহণ করেন টুর্নামেন্টের পৃষ্ঠপোষক মাহার সত্ত্বাধিকারী, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের কার্যনির্বাহি সদস্য মাহি উদ্দিন আহমদ সেলিম।
সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয় টুর্নামন্টে অংশ নেয়া বয়োজেষ্ঠ্য খেলোয়াড় আল আজাদের হাতেও। এর পর টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর হাতে তুলে দেয়া হয় স্মারক ক্রেস্ট।
অংশগ্রহণকারী সকল দল উপভোগ্য খেলা উপহার দিলেও কমিটির বিবেচনায় ফেয়ার প্লের পুরস্কারটি তুলে দেয়া হয় দৈনিক শ্যামল সিলেটের হাতে।
৪ ম্যাচে সর্বোচ্চ ৯ গোল করে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার অর্জন করেন যমুনা টিভির গোপাল বর্ধন। গোল্ডেন গ্লাভসের পুরস্কার তুলে দেয়া হয় চ্যানেল এসের গোলরক্ষক বেলাল আহমেদের হাতে। টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন দলের এই গোলরক্ষক পুরো টুর্নামেন্টে গোল হজম করেছেন মাত্র তিনটি।
ম্যান অব দ্যা ফাইনাল নির্বাচিত হন চ্যানেল এসের হুমায়ুন কবির লিটন।
টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড়র নির্বাচিত হন বাংলাদেশ প্রতিদিনের মান্না চৌধুরী।
তাদের পুরস্কার গ্রহণের পর ট্রফি গ্রহণের জন্য আহ্বান জানানো হয় টুর্নামেন্টের তৃতীয় দল যমুনা টিভির অধিনায়ককে। সেমিফাইনালে চ্যানেল এসের কাছে পরাজয়ের পর তৃতীয় স্থান নির্ধারণি ম্যাচে তারা পরাজিত করে দৈনিক সংবাদকে।
এর পর রানারআপ দলের ট্রফি ও ১৫ হাজার টাকার চেক গ্রহণ করে বাংলাদেশ প্রতিদিন দল।
সবশেষে ষোলআনা ঈদের আনন্দ নিয়ে প্রথম মাহা ইমজা মিডিয়া কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন ট্রফি ও ২৫ হাজার টাকার চেক তুলে দেয়া বিজয়ী চ্যানেল এস দলের হাতে। দলের হয়ে ট্রফি গ্রহণ করেন দল অধিনায়ক মঈন উদ্দিন মনজু।
এছাড়া সিলেট জেলা ধারাভাষ্যকার কমিটির সভাপতি দিলওয়ার হোসেনের পক্ষ থেকে ধারাভাষ্যকারদের বিবেচনায় সেরা গোলরক্ষক মঈনুল হক বুলবুল এবং প্রথম হ্যাটট্রিককারী মান্না চৌধুরীর হাতে পুরস্কার তুলে দেন ইমজার সাবেক কোষাধ্যক্ষ ও প্রবাসী সাংবাদিক আসম মাসুম।
ধন্যবাদ জ্ঞাপন : সফলভাবে টুর্নামেন্ট সম্পন্ন করতে পারায় ইমজার পক্ষ থেকে সিলেট জেলা ক্রিড়া সংস্থা, ধারাভাষ্যকার কমিটি, জেলা রেফারি এসোসিয়েশনসহ সকল সাংবাদিককে ধন্যবাদ জানানো হয়েছে। ইমজার সভাপতি মাহবুবুবর রহমান রিপন এবং সাধারণ সম্পাদক সজল ছত্রীর পক্ষ থেকে বলা হয়, এই টুর্নামেন্ট সফল করতে প্রত্যেকের আন্তরিকতা ইমজা কৃতজ্ঞতার সাথে মনে রাখবে।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • 38
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    38
    Shares



AD

 

 

 

 

 

 

 

devolop ওয়েব হোম বিডি Mobile: 01711-370851