সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান আর নেই                 লকডাউনের নির্দেশনা পায়নি প্রশাসন : রেড জোন সিলেট                 বীর মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যুতে জেলা ইউনিট কমান্ড ও স্বেচ্ছাসেবক কমিটির শোক                 আজ থেকে খুলছে ১৮ মন্ত্রণালয়ের অফিস : কাজ চলবে সীমিত                 মহানগর যুবলীগের সম্পাদক মুশফিক জায়গীরদারের ইফতার বিতরণ                 ইনজেকশন পুশ করার ৩ ঘন্টার মধ্যে সুস্থ করোনা আক্রান্ত !                 খাদ্য সামগ্রী নিয়ে অসহায়দের পাশে বিএনপি নেতা ছাত্তার                
৯ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং বৃহস্পতিবার ভোর ৫:০৮ শরৎকাল

 

 

23 September 2020

 

মেঘনায় দুই লঞ্চের সংঘর্ষে মা-ছেলে নিহত

প্রকাশিত হয়েছে : ২:৩৮:৫৫,অপরাহ্ন ১৩ জানুয়ারি ২০২০ |
এ সংবাদটি পড়া হয়েছে 93 বার
মেঘনায় দুই লঞ্চের সংঘর্ষে মা-ছেলে নিহত

বরিশাল থেকে ঢাকাগামী এমভি কীর্তনখোলা-১০ লঞ্চের সঙ্গে আরেকটি লঞ্চের সংঘর্ষে দুজন নিহত ও তিনজন আহত হয়েছেন।

রোববার রাত ১২টার দিকে মাঝেরচরে মেঘনা নদীতে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় নিহত দুজন হলেন- মাহমুদা বেগম (২২) ও তার ছেলে মোমিন (৬)। মাহমুদা বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার ভান্ডাকাঠি গ্রামের মো. রুবেল মিয়ার স্ত্রী।

দুর্ঘটনায় আহত তিনজন হলেন নূরজাহান বেগম (২২), আইফুলা বেগম (৬৫) ও হযরত আলী (৭০)। তাদের মধ্যে নূরজাহানের অবস্থা গুরুতর। তাকে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

চাঁদপুর নৌপুলিশ স্টেশনের পরিদর্শক মো. আবু তাহের সকালে দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করছেন।

কীর্তনখোলা লঞ্চ কোম্পানির কাউন্টার ব্যবস্থাপক মো. ঝন্টু জানান, ঢাকা থেকে পিরোজপুরের হুলারহাটগামী এমভি ফারহান-৯ নামের একটি লঞ্চ কুয়াশার মধ্যে কীর্তনখোলা-১০ লঞ্চের মাঝ বরাবর সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে লঞ্চের নিচতলা ও দোতলার অংশ দুমড়েমুচড়ে যায় এবং কয়েকজন যাত্রী আহত হন।

যেহেতু মাঝনদীতে ঘটনাটি ঘটেছে, তাই আহত যাত্রীদের চিকিৎসার জন্য দ্রুত ঢাকার উদ্দেশে নিয়ে যাওয়ার জন্য বলা হয়েছে।

কীর্তনখোলা-১০ লঞ্চ‌টি বরিশাল নদীবন্দর থেকে রোববার রাত ৯টার দিকে ৭০০ যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দে‌শে এবং হুলারহাট থে‌কে ফারহান ৯ লঞ্চ‌টিও ঢাকার উদ্দে‌শে রওনা হয়। লঞ্চ দুটি হিজলা উপজেলা সংলগ্ন মেঘনা নদীর মাঝেরচর এলাকায় পৌঁছালে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

কীর্তনখোলা লঞ্চের ব্যবস্থাপক বেল্লাল হোসেন অভিযোগে করেন, ফারহান-৯ লঞ্চে কোনো আধুনিক যন্ত্রপাতি না থাকার কারণেই কুয়াশার মধ্যে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে কীর্তনখোলা-১০ লঞ্চের উপরিভাগের বেশ কিছু অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হলেও তলা ক্ষতিগ্রস্ত না হওয়ায় হতাহতদের নিয়ে লঞ্চটিকে নিয়ে চাঁদপুর হয়ে ঢাকায় গেছে। সকাল ৯টায় লঞ্চটি ঢাকার সদরঘাটে পৌঁছায়।

শহিদুল ইসলাম নামে কীর্তনখোলা-১০-এর এক যাত্রী জানান, রাত ১২টার দিকে মেঘনা নদীতে তাদের বহনকারী লঞ্চ পৌঁছালে আকস্মিক বিকট শব্দ আর ঝাঁকুনিতে কেঁপে ওঠেন সবাই। আতঙ্কিত যাত্রীরা ছোটাছুটি শুরু করেন। এরপর তারা নিশ্চিত হন অন্য একটি লঞ্চ হুমড়ে পড়েছে কীর্তনখোলার ওপর। এতে ডেকের দুই যাত্রী নিহত এবং বেশ কয়েকজন আহত হন।

ফারহান-৯ লঞ্চের কেরানি আল আমিন বলেন, লঞ্চের সামনের অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। দুর্ঘটনায় লঞ্চটির ৫-৬ জন যাত্রী আহত হয়েছেন।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



AD

 

 

 

 

 

 

 

devolop ওয়েব হোম বিডি Mobile: 01711-370851