তামিম এবার কন্যার বাবা                 নগরীর লালবাজারে আবাসিক হোটেলে মেয়রের অভিযান                 নগরীতে অতিরিক্ত দামে লবণ বিক্রির দায়ে ৫ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা                 শাবিপ্রবিতে শূন্য আসনে ভর্তি কার্যক্রম শুরু                 বুধবার থেকে অনির্দিষ্টকালের পণ্য পরিবহন ধর্মঘটের ডাক                 মালিতে জঙ্গি হামলায় ২৪ সেনা নিহত                 টানা তৃতীয় সেঞ্চুরিতে হৃদয়ের বিশ্ব রেকর্ড                
৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ ২১শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং বৃহস্পতিবার দুপুর ২:২৪ হেমন্তকাল

 

 

 

৩রা নভেম্বর মানবসভ্যতার ইতিহাসে কলঙ্কিত দিন : আলহাজ্ব জালাল উদ্দীন

প্রকাশিত হয়েছে : 6:57:38,অপরাহ্ন 04 November 2017 |
এ সংবাদটি পড়া হয়েছে 513 বার
৩রা নভেম্বর মানবসভ্যতার ইতিহাসে কলঙ্কিত দিন : আলহাজ্ব জালাল উদ্দীন

যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের জেলহত্যা দিবসের আলোচনা সভা

 

ওপেননিউজ ডেস্ক :: লন্ডন, ৩ নভেম্বর : ভয়াল-বীভৎস ৩ নভেম্বর ১৯৭৫ । রক্তক্ষরা জেলহত্যা দিবস।মানবসভ্যতার ইতিহাসে আরেক বেদনাবিধুর কলঙ্কিত দিন । স্বাধীন বাংলাদেশের যে কয়টি দিন চিরকাল কালো দিন হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবে, তার একটি ৩ নভেম্বর। বাঙালি জাতিকে নেতৃত্বশূন্য করতে ৩৯ বছর আগে ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর মধ্যরাতে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে অন্তরীণ জাতির চার মহান সন্তানকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয় । ৩রা নভেম্বর জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্য রাখতে গিয়ে এসব কথা বলেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলহাজ্ব জালাল উদ্দীনিতিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম পরিচালক, মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর একনিষ্ঠ ঘনিষ্ঠ সহচর, জাতীয় চার নেতা বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম, প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দিন আহমদ, মন্ত্রিসভার সদস্য ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলী এবং এএইচএম কামারুজ্জামানকে কারাগারের নিরাপদ আশ্রয়ে থাকা অবস্থায় এমন জঘন্য, নৃশংস ও বর্বরোচিত হত্যাকান্ড পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল। ৩ নভেম্বর, শুক্রবার দুপুরে স্থানীয় মাইক্রো বিজনেস সেন্টারে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করতে গিয়ে বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী সাবেক এমপি সৈয়দা জেবুন্নেছা হক বলেন, স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের শত্রুরা সেদিন দেশমাতৃকার সেরা সন্তান এই জাতীয় চার নেতাকে শুধু গুলি চালিয়েই ক্ষান্ত হয়নি, কাপুরুষের মতো গুলিবিদ্ধ দেহকে বেয়নেট দিয়ে খুঁচিয়ে ক্ষতবিক্ষত করে একাত্তরে পরাজয়ের জ্বালা মিটিয়েছিল ।  বাঙালিকে পিছিয়ে দিয়েছিল প্রগতি-সমৃদ্ধির অগ্রমিছিল থেকে । ইতিহাসের এই নিষ্ঠুর হত্যাযজ্ঞের ঘটনায় শুধু বাংলাদেশের মানুষই নয়, স্তম্ভিত হয়েছিল সমগ্র বিশ্ব। সভা পরিচালনা করেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক ।  তিনি বলেন, হত্যাকারীরা এবং তাদের দোসররা চেয়েছিল মুক্তিযুদ্ধে পরাজয়ের প্রতিশোধ নিতে, রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধ ও সীমাহীন ত্যাগের মাধ্যমে স্বাধীনতা অর্জনকারী দেশটিকে হত্যা ও ষড়যন্ত্রের আবর্তে নিক্ষেপ করতে ।  তাদের উদ্দেশ্য ছিল পুনর্গঠন ও গণতান্ত্রিকতার পথ থেকে সদ্য স্বাধীন দেশটিকে বিচ্যুত করা । এখানেই শেষ হয়নি স্বাধীনতার শত্রুদের ষড়যন্ত্র ।  ’৭৫-এর পর থেকে বছরের পর বছর বঙ্গবন্ধুর নাম-নিশানা মুছে ফেলার চেষ্টা চলে । সৈয়দ ফারুক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন মধ্যম আয়ের দেশ ।  ষড়যন্ত্রকারীদের বাঁধা উপেক্ষা করে বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলায় প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পথে। সভায় বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি শামসুদ্দিন মাস্টার,হরমুজ আলী, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক নইম উদ্দিন রিয়াজ, মারুফ আহমদ চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আহাদ চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক শাহ শামীম আহমেদ, শিল্প ও বানিজ্য সম্পাদক আসম মিসবাহ, লন্ডন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলতাফুর রহমান মোজাহিদ, সহ সভাপতি ময়নুল হক, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল হক জিলু, বন ওপরিবেশ বিসয়ক সম্পাদক নাসির খান। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন ইস্ট লন্ডন আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজুল হক,ব্যারিস্টার অনুকুল তাুলকদার ডাল্টন, ব্যারিস্টার মনিরুল ইসলাম,যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক জামাল আহমদ খান, সাংগঠনিক সম্পাদক বাবুল খান, তাঁতীলীগের আহবায়ক এমএ সালাম ও যুক্তরাজ্য ছাত্রলীগের সহ সভাপতি সারওয়ার কবির। এর আগে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ব্রিকলেইন জামে মসজিদে বাদ জুমা জাতীয় চার নেতার আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয় ।

 

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    4
    Shares



AD

 

 

 

 

 

 

 

devolop ওয়েব হোম বিডি Mobile: 01711-370851